চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

মৃত্যুর গুজবে চটেছেন ম্যারাডোনা, গুজব ছড়ানোকে ধরিয়ে দিলে ৮,৪৩০ পাউন্ড পুরস্কার

সিটিজি বাংলা,

 

 

সম্মান টিকিয়ে রাখা আর বাঁচা মরার লড়াইয়ে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে শেষ ম্যাচে খেলতে নেমেছিল আর্জেন্টিনা। শেষ ষোলর টিকেট পেতে এই ম্যাচে জয় ভিন্ন অন্য কোনো পথ ছিল না আলবিসেলেস্তেদের। এই লড়াইয়ে নিজেদের শক্তিশালী দল প্রমাণ করে ২-১ ব্যবধানে জিতে শেষ ষোলর টিকেটও পেয়েছে মেসি-রোহোরা।

এই পুরোটা সময় মাঠে থেকে দলকে সাহস জুগিয়েছেন এক সময়কার বিষ্ময়কর খেলোয়াড় আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা। দলের গোলে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছেন। আনন্দ উদযাপন করেছেন, নেচেছেন ও নাচিয়েছেন। অবশ্য খেলা শেষে ঘটে বিপত্তি। অসুস্থ হয়ে পড়েন এই ফুটবল ঈশ্বর। হাসপাতালেও নিতে হয় তাকে। এর মধ্যেই গুজব ওঠে গেছে ম্যারাডোনা বিরুদ্ধে। গুজব ছড়িয়ে পড়ে ফুটবল ঈশ্বর ম্যারাডোনা অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। নিজের সম্পর্কে এমন মিথ্যা গুজবে প্রচন্ড খেপেছেন ম্যারাডোনা।

 

ম্যারাডোনা অসুস্থ হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই স্প্যানিশ ভাষার দুটি রেকর্ডিং ভাইরাল হয়। একটিতে বলা হয়, ম্যারাডোনার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। তাকে বাঁচানোর জন্য ইনজেকশন দেওয়া হলেও তা বাঁচাতে পারেনি ম্যারাডোনাকে। তার মৃত্যু সংবাদ এখনো আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে জানানো হয়নি।

 

মাতি নামের এক ব্যক্তির কাছে আর্জেন্টিনার কোনো এক সাংবাদিক হোয়াটসঅ্যাপে একটি রেকর্ডিং পাঠান। এতে বলা হয়, তারা ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবরটি আগামীকাল ২৮ জুন (বৃহস্পতিবার) প্রকাশ করবে। পারিবারিকভাবে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আর এতেই চটেছেন ম্যারাডোনা।

 

 

নিজের জীবিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে তার সাংবাদিক বন্ধু ডেনিয়াল আরসুচ্চিকে একটি হোয়াটসঅ্যাপ রেকর্ডিং পাঠান তিনি। এতে তিনি বলেন, ‘আমি আমার মা, আমার নাতি বেঞ্জামিন ও আমার ছেলে ফার্নান্ডোর কসম খেয়ে বলছি, আমার কিছু হয়নি।’

 

নিজের বেঁচে থাকার প্রমাণ দিয়েই খান্ত হননি এই ম্যারাডোনা। এই মিথ্যা গুজব যে ছড়িয়েছে, তাকে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য প্রায় সাড়ে ৮ হাজার পাউন্ড নগদ অর্থও ঘোষণা করেন তিনি। আর্জেন্টিনার একটি পত্রিকাতে তিনি বলেন, ‘আমি আমার অফিসের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি তাদের বলেছি, যারা আমার মৃত্যুর গুজব রটিয়েছে; তাদের ধরিয়ে দিতে পারলে ৮ হাজার ৪৩০ পাউন্ড পুরস্কার দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করো।’

READ  নতুন করে প্রমাণের কিছু নেই নাসিরের

– খবর রয়টার্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*