চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

ভুল চিকিৎসায় রাইফা’র মৃত্যুতে সাংবাদিকদের প্রতিবাদ

সিটিজি বাংলা,

 

 

চট্টগ্রাম নগরীর বেসরকারি ম্যাক্স হাসপাতালের ভুল চিকিৎসা ও চিকিৎসকের অবহেলায় চট্ট করেছে চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা।

নিহত রাইফা চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য, দৈনিক সমকালের স্টাফ রিপোর্টার রুবেল খানের কন্যা।

 

৩০ জুন শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষুব্ধ প্রতিবাদ সমাবেশ করে সাংবাদিকতা পেশার বিভিন্ন স্তরের গণমাধ্যমকর্মী ও সাধারণ মানুষ।

 

এ সময় নিহত শিশুর পিতা সাংবাদিক রুবেল খান ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে বারবার কেঁদে ফেলেন এবং এক পর্যায়ে মানসিক ভাবে দূর্বল হয়ে পড়েন।

তিনি বলেন, আমার মেয়ের (রাইফা) ঠাণ্ডা লেগে গলা ব্যথা শুরু হয়। এতে খাওয়ার বন্ধ করে দেয় সে। পরে বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ওই রাতে চিকিৎসক অ্যান্টিবায়োটিক দিলে রাইফা অস্বস্তিবোধ করে। পরে বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা শিশু বিশেষজ্ঞকে ডা. বিধান চন্দ্র রায়কে কল দেওয়ার পরামর্শ দেন। হাসপাতালের পরামর্শে শিশু বিশেষজ্ঞ বিধান চন্দ্র রায়কে কল দেওয়া হয়। তিনি যে ওষুধ দিয়েছেন তার পরই রাইফার খিঁচুনি শুরু হয়। তখন ম্যাক্স হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক দেবাশীষকে জানালে তিনি ডা. বিধানের সাথে কথা বলে ‘সেডিল’ ইনজেকশন পুশ করেন। এরপরেই রাইফার মৃত্যু হয়। ডাক্তারদের ভুল চিকিৎসা ও অবহেলাতে যাইবার আমাদের ছেড়ে চলে গেছে। ওরা আমার সন্তানকে হত্যা করেছে। ওরা ডাক্তার না খুনী।

 

 

 

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিক নেতারা বলেন, চট্টগ্রামের অধিকাংশ ডাক্তার সুনামের সঙ্গে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন। কিন্তু কিছু ডাক্তার নামের কলঙ্ক। এ পেশার অবমাননা করছেন। তারা চিকিৎসার নামে বাণিজ্য করছে। তারা সামান্য অসুস্থ মানুষকে অর্থের লোভে লাশ করে ফেলছে। বিএমএ’কে বিক্রি করে চিকিৎসক নামধারী ডাক্তার ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী চট্টগ্রামে বদলি বাণিজ্য, টেন্ডার বাণিজ্য, চাঁদাবাজি করছে। ফয়সাল ইকবাল নিজে আওয়ামী লীগের পরিচয় দিলেও জামায়াতের হাসপাতালের পরিচালক। তিনি মেডিকেলে তিন খুন মামলার আসামি পরিচয় দিয়ে গর্ববোধ করেন। এ সময় ফয়সাল ইকবালকে আশ্রয় ও প্রশ্রয় দেওয়া মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাদেরও হুশিয়ার করে দেন চট্টগ্রামের সাংবাদিক নেতারা।

READ  ‘ভালো আছেন’ মেয়র আনিসুল হক

 

 

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামলের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌসের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল জলিল ভুইয়া, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি কলিম সরোয়ার, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু জাফর সুর্য, সাবেক সভাপতি শাবান মাহমুদ, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক জাকারিয়া কাজল, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, যুগ্ম সম্পাদক তপন চক্রবর্তী, নির্বাহী সদস্য আসিফ সিরাজ, সিইউজের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাঈনুদ্দীন দুলাল, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি কাজী আবুল মনসুর, যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিইউজের অর্থ সম্পাদক কাশেম শাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আহমেদ কুতুব, নির্বাহী সদস্য উত্তম সেনগুপ্ত ও ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হওয়া শিশু রাইফার বাবা সাংবাদিক রুবেল খানসহ অনেকেই।

 

 

প্রতিবাদ সমাবেশে সংহতি জানান বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, চট্টগ্রাম টিভি ক্যামরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ অ্যালোমনাই এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

 

 

এর আগে গেল শুক্রবার রাতে এ মৃত্যুর খবর পেয়ে প্রেস ক্লাব, সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বিএফইউজের নেতারা তাৎক্ষনিকভাবে রাতেই ম্যাক্স হাসপাতালে ছুটে যান। সেখান থেকে পুলিশ ঢেকে অভিযুক্ত ডাক্তারসহ ৩ জনকে থানায় সোপর্দ করে। চকবাজার থানার ওসির কক্ষে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি হয়। চুক্তিতে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকীকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই কমিটি রাইফা’র মৃত্যু কিভাবে হলো তা তদন্ত করে রিপোর্ট দেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*