চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

টানা বর্ষণে বান্দরবানে পাহাড় ধসে একই পরিবারের তিনজনসহ চারজন নিহত

সিটিজি বাংলা, বান্দরবান প্রতিনিধি:

 

চট্টগ্রাম পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লামা উপজেলায় এক পরিবারের শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও দুইদিনের টানা বৃষ্টিতে জেলা শহরের মধ্যে পাহাড় ধসে এক নারী নিহত হয়েছে।

 

৩ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সরই ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি কালাইয়া পাড়ায় এবং জেলা শহরের কালাঘাটা এলাকার বড়ুয়াপাড়ায় বসতবাড়ির ওপর পাহাড় ধসে পড়লে এ ঘটনা ঘটে। পরে দমকল বাহিনীর কর্মীরা এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে মাটির নিচ থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে।

 

মৃতরা হলেন কালাইয়া পাড়ার বাসিন্দা মো. মাঈন উদ্দিনের ছেলে মো. হানিফ (৩০), হানিফের স্ত্রী রেজিয়া খাতুন (২৫) ও মেয়ে হানিফা আক্তার (৩)। পরিবারের অন্য সদস্যরা ঘরের বাইরে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান।
অন্যদিকে শহরের কালাঘাটা এলাকার বড়ুয়াপাড়ায় বাসিন্দা প্রতিমা রানী দাশ (২৫)।

 

স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল থেকে টানা বর্ষণ শুরু হয়। এ সময় মাঈন উদ্দিনের বসতঘরের ওপর আচমকা পাহাড় ধসে পড়ে। এতে ঘুমন্ত মো. হানিফ, তার স্ত্রী ও সন্তান মারা যায়। খবর পেয়ে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

সরই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. আশ্রাফ আলী বলেন, মৃতদের ঘর থেকে পাহাড় প্রায় ২০০ ফুট দূরে। এত দূর থেকে পাহাড়ে মাটি এসে মাটির ঘর চাপা পড়ে মৃত্যুর ঘটনা আশ্চর্যজনক।

এ বিষয়ে লামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর-এ-জান্নাত রুমি বলেন, পাহাড় ধসে শিশুসহ তিনজনের মৃত্যুর সংবাদ পেয়েছি। সেখানে উদ্ধারকর্মীরা কাজ করছেন, ঝুঁকি পূর্ণ বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

 

 

অপরদিকে মঙ্গলবার দুপুরে শহরের কালাঘাটা এলাকার বড়ুয়াপাড়ায় বাসিন্দা প্রতিমা রানী দাশের বসতবাড়ির ওপর পাহাড় ধসে পড়লে ঘটনাস্থলে ওই গৃহবধূ নিহত হন।

এই ঘটনার পর জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন, পৌর মেয়র ইসলাম বেবীসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
ফায়ার সার্ভিসের বান্দরবানের উপ-পরিচালক ইকবাল সোবাহান জানান, মাটি খুঁড়ে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

READ  অর্থাভাবে স্ত্রীর মৃতদেহ কাঁধে ১০ কিলোমিটার পথ পাড়ি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*