চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

আবর্জনা’র বিনিময়ে চিকিৎসা (ভিডিও)

অর্থ নয়, ‘আবর্জনা’র বিনিময়ে রোগীকে চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্র দিচ্ছেন ইন্দোনেশিয়ার চিকিৎসকরা। দেশটির চারটি বে-সরকারি ক্লিনিকে দুই বছরে এভাবে চিকিৎসা পেয়েছেন সাড়ে তিন হাজার দরিদ্র রোগী। এই পদ্ধতি চালু করেছেন দেশটির তরুণ চিকিৎসক গামাল আল-বিনসাঈদ৷

জানা গেছে, এসব ক্লিনিকে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য দরিদ্র মানুষেরা পরিত্যক্ত আবর্জনা নিয়ে যায়৷ ফলে তারা বিনা খরচায় চিকিৎসা সেবা পায়৷

চিকিৎসার যাবতীয় খরচ তোলার জন্য আবর্জনা থেকে কম্পোষ্ট সার তৈরি করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। রিসাইকেল পদ্ধতিতে এ সার তৈরি করা হয়। পরে সেগুলো বিক্রি করে দেওয়া হয়।

আল-বিনসাঈদের নিজের কোম্পানি ‘গার্বেজ ক্লিনিক্যাল ইনসুরেন্স’ ক্লিনিকসহ চারটি ক্লিনিকে এভাবে দরিদ্রদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে৷ এছাড়া ক্যাম্পেইন করেও দেশটির বিভিন্ন এলাকায় এভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এ প্রক্রিয়ায় চিকিৎসা নেওয়ার জন্য ক্লিনিকে দুই কেজি পরিমাণ প্লাস্টিকজাতীয় পণ্য বা ৫ কেজি কার্ডবোর্ড জমা দিতে হয় দরিদ্র রোগীকে। এজন্য ক্লিনিক দুই মাস পর্যন্ত সাধারণ স্বাস্থ্য সেবা দেয় তাঁদের।

জানা গেছে, দেশটিতে রাষ্ট্রীয় ভাবে চিকিৎসা সেবা নেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য বীমার দরকার হয়। স্বাস্থ্য বীমা ছাড়া কোন নাগরিক সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে পারেন না।কিন্তু দেশটির বেশির ভাগ রোগীর এ ধরণের বীমা নেই। কারণ দেশটির দারিদ্রতার হার ৬০ ভাগ।

আল-বিনসাঈদ জানান, ২০০৫ সালের একটি ঘটনা তাকে ভীষণ নাড়া দ্যায়। সেসময় তিন বছরের একটি মেয়ে ডায়রিয়ায় মারা যায়৷ মেয়েটির কোন স্বাস্থ্যবীমা না ছিল না। তাই  চিকিৎসা সেবা পায়নি।

আলবিনসাঈদ জানান, শহরের মোট আবর্জনার মাত্র ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ ময়লা নিয়মিত সংগ্রহ করা হয়৷ বাকিগুলো যত্রতত্র পড়ে থাকে৷ এগুলো সংগ্রহ করে একজন দরিদ্র রোগী সহজেই এসব ক্লিনিক থেকে চিকিৎসা পেতে পারেন। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ম্যাগাজিন ‘ফাস্ট কোম্পানি’র থেকে এ খবর জানা গেছে।

আলবিনসাঈদ এর সাক্ষাতকারটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

READ  হালিশহর নির্মাণ শ্রমিক কল্যাণ ইউনিয়নের উদ্যোগে ইফতার সামগ্রি বিতরণ সম্পন্ন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*