চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

একুশে পত্রিকা সম্পাদকের বিরুদ্ধে ওসির জিডি, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের নিন্দা

সিটিজি বাংলাঃ

সংবাদ প্রকাশের জের ধরে একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদারের বিরুদ্ধে নিজের থানায় ‘সাধারণ ডায়েরি’ (জিডি) করেছেন চট্টগ্রামের বোয়ালখালী থানার ওসি সাইরুল ইসলাম।

‘জিডির’ একটি কপি ওই পত্রিকা অফিসে পাঠানো হলেও এতে নেই ওসির স্বাক্ষর-সীল। জিডির নাম্বার ৮৪৩, তারিখ- ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮।

এর আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর ‘সরকারি গাড়ি নয়, কর্মস্থলে ব্যক্তিগত গাড়িতে ঘোরেন ওসি!’ শিরোনামে একটি বিশেষ সংবাদ প্রকাশ করে একুশে পত্রিকা। এতে উল্লেখ করা হয়, বোয়ালখালী থানার নতুন ওসি সাইরুল ইসলাম সরকারি গাড়ির পরিবর্তে ব্যক্তিগত বিলাসবহুল গাড়ি ব্যবহার করছেন। এছাড়া বোয়ালখালীতে যোগদানের আগে ওসির কক্ষে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্র (এসি) লাগান সাইরুল ইসলাম।

ওই প্রতিবেদনে ক্ষুব্ধ হয়েই ওসি নিজের থানায় একুশে পত্রিকা সম্পাদক আজাদ তালুকদারের বিরুদ্ধে এ ‘জিডি’ রেকর্ড করেন বলে জানা গেছে।

জিডিতে প্রাইভেট গাড়ি নিয়ে ঘোরার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে ওসি লিখেছেন, ‘… সংবাদের বিষয়ে এই মর্মে ভবিষ্যতের জন্য নোট করিতেছি যে, আমার গাড়ি হিসেবে যে গাড়িটি ব্যবহার করিতেছি মর্মে সংবাদ প্রকাশ করা হইয়াছে তাহা আমার ছোটভাই সাইফুল ইসলাম-এর ব্যবহৃত নিজস্ব গাড়ি। যাহা কয়েকদিন আগে আমার ছোটভাই ঢাকা হইতে চট্টগ্রামে উক্ত গাড়ি নিয়ে আসার পর গাড়িটিতে ক্রুটি দেখা দেওয়ায় গাড়িটি মেরামতের জন্য আমার কাছে রেখে যান।’

নিজের কক্ষে এসি লাগানোর বিষয়ে জিডিতে ওসি লিখেছেন, ‘পূর্ব থেকে থানার রেস্ট রুমে থাকা এসিটি স্থান বদল করে আমার অফিসকক্ষে লাগানো হইয়াছে। এই ক্ষেত্রে কাহারো থেকে কোনপ্রকার দান বা অনুদান গ্রহণ করা হয় নাই।’

‘…রেজি:বিহীন বেআইনীভাবে একুশে পত্রিকা নামীয় অনলাইন সংবাদপত্রের সম্পাদক সঠিকতা ও বাস্তবতা যাচাই না করিয়া মিথ্যা ও ভুয়া তথ্য সম্বলিত বর্ণিত সংবাদটি প্রকাশ করিয়াছে। …উক্ত বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি গোচরীভূত করণসহ সংশ্লিষ্টদের বিষয়ে পরবর্তী প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে ভবিষ্যতের জন্য ডায়রীতে নোট রাখা হইল।’ জিডিতে এভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

READ  মিয়ানমারের ওপর অবরোধ আরোপ করছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রসঙ্গত, সরকারের অনুমোদন নিয়ে সাপ্তাহিক পত্রিকা হিসেবে ‘একুশে পত্রিকা’ ছাপা হয় প্রায় ১৪ বছর ধরে। পাঠকচাহিদার কথা বিবেচনা করে গত তিনবছর ধরে অন্য গণমাধ্যমগুলোর মত অনলাইন ভার্সন চালু করেছে একুশে পত্রিকা। এর বাইরে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী অনলাইন পত্রিকা হিসেবে নিবন্ধন পেতে অন্য সবার মত আবেদনও করেছে ‘একুশেপত্রিকাডটকম’।

এখন পর্যন্ত কোন অনলাইন গণমাধ্যমকে সরকার নিবন্ধিত করতে পারেনি; তবে নিবন্ধনের জন্য আবেদন করার পর অনলাইন পত্রিকা হিসেবে সক্রিয় থাকার ক্ষেত্রে কোনো আইনি বাধা নেই বলে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে জানানো হয়েছে।

একটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) মত দায়িত্বশীল পদে থেকে একজন পুলিশ কর্মকর্তা কোন তথ্য-প্রমাণ ছাড়াই একটি স্বনামধন্য গণমাধ্যমকে ‘রেজি:বিহীন’ বলাটা দুঃখজনক বলছেন সাংবাদিক নেতারা। তারা বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে গণমাধ্যম সবচেয়ে বেশি সম্প্রসারিত ও বিকশিত হলেও প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তার কারণে দেশে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে প্রশ্ন উঠছে। নিজের অনৈতিক কর্মকাণ্ড আড়াল করতে ক্ষমতার বড় ধরনের অপব্যবহার করেছেন ওসি সাইরুল।

এদিকে, সাংবাদিক আজাদ তালুকদারের বিরুদ্ধে বোয়ালখালী থানার ওসি সাইরুল ইসলাম জিডি করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা।

বিবৃতিদাতা নেতারা হলেন, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমুদ্দিন শ্যামল, সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব মহসীন কাজী, নির্বাহী সদস্য রুবেল খান ও আজহার মাহমুদ।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকতা কোনো অপরাধ নয়। একটি সংবাদকে কেন্দ্র করে পত্রিকার সম্পাদকের বিরুদ্ধে জিডি করে বোয়ালখালী থানার ওসি ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন। এ ধরনের ঘটনা স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিপন্থী। প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মচারী হয়ে তিনি এ ধরনের আচরণ করতে পারেন না। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি অবিলম্বে একুশে পত্রিকা সম্পাদক আজাদ তালুকদারের বিরুদ্ধে দায়ের করা জিডি প্রত্যাহারের দাবি জানাই। আশা করি, এ ব্যাপারে ওসির শুভবুদ্ধির উদয় হবে।

READ  মৃত্যু থেকে ১৮ মিনিট দূরে ছিলেন মেসিরা!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*