চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

আইন-আদালত

আত্মসমর্পনের পর কারাগারে হামিদুর রহমান

সিটিজি বাংলাঃ

আদালত অবমাননার মামলায় জামায়াতের নির্বাহী পরিষদ সদস্য, সাবেক সংসদ সদস্য হামিদুর রহমান আজাদের জামিন আবেদন খারিজ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।আজ বুধবার দুপুরে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামায়াতের এই নেতার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আবদুস সুবহান তরফদার ও মুজাহিদুল ইসলাম শাহীন। প্রসিকিউটর ছিলেন জেয়াদ আল মালুম।এর আগে আজ বেলা পৌনে ১১টার দিকে ট্রাইব্যুনালে জামায়াতের এই নেতা আত্মসমর্পণ করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি বিচারাধীন বিষয়ে বক্তব্য করায় জামায়াত নেতা রফিকুল ইসলাম খান, নির্বাহী পরিষদ সদস্য হামিদুর রহমান আজাদ ও মো. সেলিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন ট্রাইব্যুনাল। ওই বছরের ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়।২০১৩ সালের ২০ জুন হামিদুর রহমান আজাদকে তিন মাসের কারাদণ্ড এবং তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। দীর্ঘদিন পর তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠান। সূত্রঃ এনটিভি অনলাইন

চট্টগ্রামে ব্যাংকার ছেলের বিরুদ্ধে পিতার ভরণ পোষণ মামলা

সিটিজি বাংলাঃ

চট্টগ্রামে পিতা মাতার ভরণ পোষণ আইনে ব্যাংকার ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পিতা মো. আবু তাহের। আদালত শুনানি শেষে আসামি এবি ব্যাংক খুলশী শাখার (রিকভারী শাখার) ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ শাহ্জাহান (৫২)কে স্বশরীরে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।

আজ বৃহস্পতিবার মহানগর হাকিম আবু সালেম মোহাম্মদ নোমান-এর আদালত এ নির্দেশ দেন।

বাদীর পক্ষের আইনজীবি মানবাধিকার নেতা এডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান পাঠক ডট নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার থানা পশ্চিম বাকলিয়া ডি.সি রোড আইয়ূব আলী সওদাগরের বাড়ির বাসিন্দা মোহাম্মদ আবু তাহেরের ছেলে মো. শাহজাহান ও একটা মেয়ে রয়েছে। দুজনই বিবাহিত। দীর্ঘদিন ধরে ছেলে মাতা-পিতাকে ভরণপোষণ না দিয়ে বিলাস বহুল জীবন যাপন করে আসছে। বৃদ্ধ পিতা মেয়ের সামান্য সহায়তা নিয়ে বহুকষ্টে স্বস্ত্রীক জীবিকা নির্বাহ করছে। এতে বৃদ্ধ পিতা মাতা সমাজে নানা ধার দেনায় জর্জরিত হয়। উপায়ন্তর না দেখে ছেলেকে বার বার অবহিত করলেও ছেলের পক্ষ থেকে অপারগতা প্রকাশ করলে মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন-বি.এইচ.আর.এফ আইনী সহায়তায় পিতা-মাতার ভরণ পোষণ আইন, ২০১৩-এর ৩/৫ ধারায় ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

বাদী পক্ষের মামলা পরিচালনা করেন মানবাধিকার আইনজীবী এডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান, এডভোকেট এ.এইচ.এম জসীম উদ্দিন, এডভোকেট জান্নাতুল নাঈম রুমানা, এডভোকেট দেওয়ান ফিরোজ আহাম্মদ, এডভোকেট প্রদীপ আইচ, এডভোকেট মো. হাসান আলী প্রমুখ।

চট্টগ্রামের আলোচিত সমর কৃষ্ণ চৌধুরী অবশেষে জামিন পেলেন

সিটিজি বাংলা,

 

চট্টগ্রাম আদালত থেকে অস্ত্র ও ইয়াবা রাখার অপরাধে আটক হওয়া আলোচিত ও সমালোচিত বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও আইনজীবীর সহকারি সমর কৃষ্ণ চৌধুরী (৬৩) অবশেষে জামিন পেলেন।

 

১০ জুলাই মঙ্গলবার তার উপর অর্পিত মামলার শুনানি শেষে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী আবদুল মজিদ অস্ত্র মামলায় সমর কৃষ্ণ চৌধুরীকে জামিন দেয়া হয়।

 

 

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সমর কৃষ্ণ চৌধুরীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, আদালত অস্ত্র উদ্ধারের মামলায় সমর কৃষ্ণ চৌধুরীর জামিন মঞ্জুর করেছেন। এর আগে ২৪ জুন একই আদালত ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় সমর কৃষ্ণ চৌধুরীর জামিন মঞ্জুর করেছিলেন।

 

 

প্রসঙ্গত, বোয়ালখালী উপজেলার সারোয়াতলী গ্রামের সমর কৃষ্ণ চৌধুরীকে গত ২৮ মে ‘অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারের’ মামলায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় বোয়ালখালী থানা পুলিশ।

তবে তার পরিবারের সদস্যদের দাবি, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক সঞ্জয় দাশের সঙ্গে বিরোধের জেরে বোয়ালখালী থানা পুলিশ সমর কৃষ্ণ চৌধুরীকে চট্টগ্রাম নগর থেকে তুলে নিয়ে মাদক ও অস্ত্র দিয়ে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ করে আসছিলেন শুরু থেকেই।

চট্টগ্রাম রেঞ্জের নতুন ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক

সিটিজি বাংলা:

 

 

পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের নতুন উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন খন্দকার গোলাম ফারুক। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

বিসিএস (পুলিশ) ১২ তম ব্যাচের কর্মকর্তা খন্দকার গোলাম ফারুক সর্বশেষ পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। অন্যদিকে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি এসএম মনির-উজ-জামানকে পুলিশ অধিদফতরের ডিআইজি (টিআর) পদে বদলি করা হয়েছে।

চট্টগ্রামের বাকলিয়ায় ইলহামের খুনের সন্দেহের আসামি রাজুর রিমান্ড মঞ্জুর

সিটিজি বাংলা:

 

 

নগরীর বাকলিয়ায় নিজ বাসায় স্কুলছাত্রী ইলহাম বিনতে নাছিরের (১২) খুনের ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে নানা নাছির উদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

 

ওই মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে গ্রেফতার হওয়া শিক্ষানবিশ আইনজীবী রিজুয়ান কবির রাজুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত শুক্রবার আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করে পুলিশ।

১ জুলাই রোববার চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মহিউদ্দিন মুরাদের আদালতে তার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ এই তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, রিমান্ডে নেয়া রাজু নিহত ইলহাম বিনতে নাছিরের ছোট চাচির ছোট ভাই। তিনি সাতকানিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর শিকু আরা বেগমের ছেলে এবং চট্টগ্রাম জজকোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী।

 

পুলিশ জানায়, ইলহামকে খুনের পর গলাটাকা লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় কথিত এই রাজু।

 

এর আগে গত সপ্তাহে বুধবার নগরের বাকলিয়া থানার ল্যান্ডমার্ক আবাসিক এলাকায় নিজ বাসাতেই খুন হয় ইলহাম বিনতে নাছির। নিহত ইলহাম নগরীর মেরন সান স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। নিহতের বাবা মো. নাছির উদ্দিন সৌদি আরব প্রবাসী।

সিএমপি’র মাসিক কল্যান সভায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সনদ প্রদান

সিটিজি বাংলা,

 

 

 

চট্টগ্রাম নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইন্সের মাল্টিপারপাস শেডে সিএমপি’র মাসিক কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

এতে গেল মে মাসে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার ও ভাল কাজের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৮৭ জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদেরকে নগদ অর্থ ও সম্মাননা সনদ প্রদান করেন সিএমপি কমিশনার।

 

২৮ জুন বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান নিজে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৮৭ জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদেরকে নগদ অর্থ ও সম্মাননা সনদ প্রদান করেন।

 

মাসিক কল্যান সভায় সিএমপি কমিশনার প্রত্যেক বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বেশ কয়েকটি নির্দেশনা দেন। এ সময় তিনি চট্টগ্রাম নগরের সন্ত্রাসী ও প্রভাবশালীদের কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশ কর্মকর্তাদের বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

 

সিএমপি কমিশনার তার বক্তব্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকাভিত্তিক বিট পুলিশিংয়ে জোর দেন। তিনি এখন থেকে প্রত্যেক শনিবার বিট এলাকায় সভা করার নির্দেশ দেন সংশ্লিষ্ট বিট পুলিশের কর্মকর্তাদের। উক্ত সভায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারে থানা, ডিবি সহ অন্যান্য সংস্থাকে যৌথভাবে কাজ করার পরামর্শও দেন পুলিশ কমিশনার।

 

মাসিক কল্যান সভায় ৮৭ জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফরা নগদ অর্থ ও সম্মাননা সনদ পেয়েছেন। তার মধ্যে শ্রেষ্ঠ বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি), শ্রেষ্ঠ থানা, শ্রেষ্ঠ পরিদর্শক, শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শকের সম্মাননা সনদ পেয়েছেন।

 

যারা পেলেন যথাক্রমে: উপ-পুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) মো. ফারুক উল হক,
সহকারী পুলিশ কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) দেবদূত মজুমদার,
সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি-পশ্চিম) মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম,
আকবরশাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন,
সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন,
পাহাড়তলী থানার এসআই অর্ণব বড়ুয়া।

 

 

এ মাসিক কল্যান সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) মাসুদ উল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) কুসুম দেওয়ান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) শ্যামল কুমার নাথ, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর)হারুন-উর-রশিদ হাযারী, উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) মো. আব্দুল ওয়ারীশ, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মোস্তাইন হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) মো. ফারুক উল হক, উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর) সৈয়দ আবু সায়েম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সিএসবি) মো. মোখলেছুর রহমান, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-উত্তর) হাসান মো. শওকত আলী, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-বন্দর) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-বন্দর) ফাতিহা ইয়াছমিনসহ র্যা ব, সিআইডি, পিবিআই, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ, এপিবিএন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের প্রতিনিধিসহ প্রসাশনের বিভিন্ন কর্মকর্তাবৃন্দ।

হজ ও ওমরাহ নীতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে – ধর্মমন্ত্রী

সিটিজি বাংলা:

 

 

বাংলাদেশের হজ্ব যাত্রীদের অসুবিধা লাঘবে এ বছর জাতীয় হজ্ব ও ওমরাহ নীতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফলে এ বছর হজ্বে এই ধরনের বিড়ম্বনা এড়ানো সম্ভব হবে বলে আশা করা যায় বলেছেন ধর্মমন্ত্রী।

 

২৭ জুন বুধবার সংসদে টেবিলে উপস্থাপিত প্রশ্নোত্তরে সংরক্ষিত আসনের সদস্য মাহজাবিন খালেদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী একথা জানান।

 

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান সংসদকে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট সিডিউল অনুযায়ী হজ্ব এজেন্সিসমূহ কর্তৃক যথাসময়ে টিকিট সংগ্রহ না করা এবং বিমান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক টিকিট সংগ্রহের বাধ্যবাধকতা আরোপ না করায় বিগত সময়ে ফ্লাইট সিডিউল পরিবর্তন হয়েছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ফ্লাইট বাতিল হয়েছে।

 

ধর্মমন্ত্রী জানান, ওই নীতির অনুচ্ছেদ ১০দশমিক ৯ অনুযায়ী হজ ফ্লাইট পরিচালনার লক্ষ্যে এয়ারলাইন্সসমূহ সকল টিকিট বিক্রি/বুকিং সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সির সমসংখ্যক হজ্ব যাত্রীর নামের অনুকূলে বরাদ্দ ও ইস্যু করার এবং তা দৈনিকভিত্তিক অনলাইনে প্রদর্শনের নির্দেশনা রয়েছে।

 

আওয়ামী লীগের এ কে এম রহমতুল্লাহর এক প্রশ্নের জবাবে মতিউর রহমান সংসদকে জানান, বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সারাদেশের ওয়াক্ফ সম্পত্তি থেকে ওয়াক্ফ চাঁদা আদায়ের পরিমাণ ৬ কোটি ৫২ লাখ ৪৬ হাজার ৪৬৭ টাকা। বর্তমানে ওয়াক্ফ আমানত হিসেবে বিভিন্ন ব্যাংকে ৩৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকা জমা আছে।

 

উক্ত আয় থেকে ওয়াক্ফ প্রশাসক, উপ প্রশাসক, সহকারী প্রশাসক ও সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদিসহ সকল সংস্থাপন ব্যয় নির্বাহ করা হয়।

এছাড়া বিভিন্ন আদালতে বিচারাধীন মামলা পরিচালনার ব্যয়ও এখান থেকে নির্বাহ করা হয়ে থাকে বলেও জানান তিনি।

সিএমপির ট্রাফিক (উত্তর)এর উদ্যোগে গাড়ি চালক-হেলপারদের দেয়া হলো প্রশিক্ষণ কর্মশালা

সিটিজি বাংলা:

 

 

চট্টগ্রাম নগরীতে বিভিন্ন রুট ও প্রধান সড়কে চলাচলরত গাড়ি চালক ও হেলপারদের জন্য শুদ্ধ ভাবে গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

 

২৫ জুন সোমবার নগরীর সদরঘাট থানার পাশে অবস্থিত সিএমপির ট্রাফিক (উত্তর) কার্যালয়ে এ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত করা হয়েছে।

 

গণপরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা রক্ষা, সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ ও যাত্রীসেবার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে এ সমস্থ গাড়ি চালক ও হেলপারদের জন্য এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

 

এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিএমপি’র উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) হারুন-উর-রশিদ হাযারী।

তিনি জানান, নগরীতে ব্যাপক হারে গাড়ি দূর্ঘটনার প্রবণতা বেড়েছে, অদক্ষ চালক ও হেলপারদের কারণে এবং ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান না থাকায় হর হামেশা এ শহরের বিভিন্ন সড়কে প্রতিনিয়তই ঘটছে। এছাড়া, প্রধানমন্ত্রী তরফ থেকে এ ব্যাপারে প্রশিক্ষণের নির্দেশনা রয়েছে।

 

এদিকে, প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রথম দিন গাড়ি চালক ও হেলপারদের প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন গাড়ি চালনা, দুর্ঘটনা প্রতিরোধ, বিভিন্ন সংকেত, যাত্রী সেবার মান উন্নয়ন সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয়। এছাড়া ট্রাফিক আইন সম্পর্কিত বিবিধ বিষয় সহজবোধ্য ভাবে উপস্থাপন করা হয়।

সিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) ওয়াহিদুল হক চৌধুরীসহ পুলিশের বিভিন্নস্তরের কর্মচারি-কর্মকর্তারা এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন ১১ কর্মকর্তার বদলি জারি

সিটিজি বাংলা:

 

 

পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) ও অতিরিক্ত ডিআইজি পদমর্যাদার ১১ কর্মকর্তাকে নতুন কর্মস্থলে বদলি করা হয়েছে।

২৪ জুন রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এই রদবদল করে একটি আদেশ জারি করা হয়েছে।

বদলিকৃতদের মধ্যে সিআইডি’র ডিআইজি মো. লুৎফর রহমান মণ্ডলকে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে (এপিবিএন),

পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) মল্লিক ফখরুল ইসলাম ট্যুরিস্ট পুলিশে,

সিআইডি’র অতিরিক্ত ডিআইজি মো. শাহ আলমকে সিআইডি’র ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে),

এসবি’র অতিরিক্ত ডিআইজি মো. তওফিক মাহবুব চৌধুরী এসবি’র ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে),

ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(ভারপ্রাপ্ত) কৃষ্ণ পদ রায় (ডিআইজি-চলতি দায়িত্বে),

রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি বশির আহম্মদ পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে) টিআর পদে,

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমানকে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে),

ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে),

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত ডিআইজি এ কে এম হাফিজ আক্তার আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার (ডিআইজি-চলতি দায়িত্বে),

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. খ. মহিদ উদ্দিন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে)

ও ডিএমপি’র যুগ্ম পুলিশ কমিশনার মো. আবদুল বাতেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিআইজি-চলতি দায়িত্বে)।

অনিক হত্যা মামলার মূল আসামি মহিউদ্দিন তুষার ও তার সহযোগী আসামি ভারতে আটক

সিটিজি বাংলা,

 

চট্টগ্রাম নগরীতে চট্টেশ্বরী পল্টন রোডে গাড়ির হর্ন দেওয়াকে ইস্যু নিয়ে বিচার চলাকালে ছুরিকাঘাতে আবু জাফর অনিক (২৬) নিহতের ঘটনায় হত্যা মামলার প্রধান আসামি ও তার সহযোগী আসামিকে আটক করেছে ভারতীয় পুলিশ।

 

২৫ জুন সোমবার তাদেরকে বেনাপোল সীমান্তে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ।

 

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে, বাংলাদেশের চট্টগ্রামে খুন করে এদেশে আত্মগোপন করতে চেয়েছিল দুই অপরাধী। তাদের নাম মুহম্মদ মহিনুদ্দিন তুষার ও মুহম্মদ একলাসুর রহমান। চার-পাঁচদিন আগে সীমান্ত পার হয়ে ওই দু’জন ঢুকে পড়ে এদেশে। তারপর সোজা কলকাতায়। এরা যে এদেশে ঢুকেছে তার প্রমাণ ছিল বাংলাদেশের কাছে। এ দু’দেশের মধ্যে বন্দী প্রত্যর্পণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বহু আগেই। কিন্তু তার সফল প্রয়োগ অনেক ক্ষেত্রেই হত না। কিন্তু এবার বাংলাদেশ প্রশাসনের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে নড়ে বসে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স।

 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মোস্তাইন হোসাইন ভারতে আটককৃত আসামিদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গণমাধ্যমকে।
তিনি জানিয়েছেন, গেল শুক্রবার রাতে কলকাতার ফ্রি স্কুল স্ট্রিট এলাকায় আত্মগোপন থাকা অবস্থায় অনিক হত্যা মামলার প্রধান আসামি মহিউদ্দিন তুষার ও তার সাথে থাকা অন্য এক সহযোগি আসামিকেও আটক করে ভারতীয় পুলিশ। সমন্ন প্রক্রিয়া শেষে সোমবার ওই দুইজনকে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে এ দেশের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে তারা।

এরা দুইজন হলেন, অনিক হত্যা মামলার প্রধান/ ১নং আসামি মো. মহিউদ্দিন তুষার (৩০) এবং মো. এখলাসুর রহমান(২২)।

 

উল্লেখ্য, গেল ১৭ জুন বিকেল ৫টার দিকে গাড়ির হর্ন দেওয়াকে কেন্দ্র করে আবু জাফর অনিকের ছোট ভাই আবু হেনা রনিকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় কিছু স্থানীয় যুবকের।

ঐদিন রাতে অনিক ও তার বাবা স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. নাছির উদ্দিনসহ বিষয়টি সমস্যার মিমাংসা করতে গেলে ঘটনাস্থলে ছুরিকাঘাতে খুন হয় রনিকের বড়ভাই আবু জাফর অনিক (২৬)।

সেখানে অনিকের বাবার সামনে অনিককে ছুরিকাঘাত করে মহিউদ্দীন তু্ষার ও তার সহযোগিরা। আবু জাফর অনিক পেশায় গাড়ি চালক ছিলেন।

 

এই মামলায় প্রধান আসামি মহিউদ্দীন তুষার (৩০) ও এখলাসুর রহমান (২২) ছাড়াও অন্যান্য আসামিরা হলেন, মিন্টু (৩২), ইমরান শাওন (২৬), ইমন (১৬), শোভন (২৪), রকি (২২), অপরাজিত (২২), অভি (২১), বাচা (২২), দুর্জয় (২১) এবং অজয় (২১)।