চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

আইন-আদালত

সিএমপি চট্রগ্রামের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 

সিটিজি বাংলা:  চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৬ জুন বুধবার নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনসের মাল্টিপারপাস শেডে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে সিএমপির সব উপ-কমিশনার, অতিরিক্ত উপ-কমিশনার, সহকারী কমিশনার, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ সর্বস্তরের পুলিশ সদস্যরাও অংশ নেন।

এছাড়া, পুলিশসহ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তা এবং চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার, অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন) মাসুদ-উল-হাসান, অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম, অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) কুসুম দেওয়ান আগত অতিথিদের সকলকেই অভ্যর্থনা জানিয়ে রমযানের তাৎপর্য ও শিক্ষা নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

চট্টগ্রামের জিওসি মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি এস এম মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার শংকর রঞ্জন শাহা, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন, পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনাসহ সাংবাদিক, রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, সংস্কৃতিকর্মী এবং চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা অংশ নেন।

চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, অপরাধ দমনে পুলিশ সদস্যদের নিরলসভাবে কাজ করতে হবে। জনগণের আস্থা অর্জন করতে হবে। তবেই পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

পরে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে আলোচনা সভা শেষ হয়ে যায়।

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় জামায়াতের ক্যাডার আজিজুল হক প্রকাশ বাটা আজিজ গ্রেপ্তার

ট্রেনের টিকেট বিক্রি দুর্নীতিমুক্ত করতে রেলস্টেশনে অভিযান দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিমের

সিটিজি বাংলা:  আসন্ন ঈদ-্উল-ফিতর সামনে রেখে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি দুর্নীতিমুক্ত করতে দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম কমলাপুর রেলস্টেশনে অভিযান চালিয়েছে।

৩ জুন রবিবার সকালে দুদকের উপ-পরিচালক মো. মাহমুদ হাসানের নেতৃত্বে এনফোর্সমেন্ট টিম কমলাপুর রেলস্টেশনে আকস্মিক এ অভিযান চালায়। এ সময় এনফোর্সমেন্ট টিমের সদস্যরা ষ্টেশনের টিকেট করতে আসা যাত্রীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন, ভুক্তভোগী কিছু যাত্রী লাইন ভেঙে এবং তদবিরের মাধ্যমে টিকেট ক্রয়-বিক্রয়ের অভিযোগ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে টিমের সমন্বয়কারী দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী বলেন, ‘ঈদের টিকেট ব্যবস্থাপনাকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে দুদক সার্বক্ষণিক নজরদারি করছে। এ নিয়ে কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি হলে ভুক্তভোগী যাত্রীদের পাশে দাঁড়াবে দুদক।

দুদক টিম স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তীকে সঙ্গে নিয়ে টিকিট কাউন্টারের ভেতরের অংশের কার্যক্রম ঘুরে দেখেন।পরে এনফোর্সমেন্ট টিম স্টেশন ম্যানেজারকে টিকেট বিক্রিতে স্বচ্ছতা ও শৃঙ্খলা আনার নির্দেশ দেন।

এছাড়া টিকিট কালোবাজারিদের দৌরাত্ম্য বন্ধ ও টিকেট ক্রয়-বিক্রয়ে শৃঙ্খলা রক্ষায় দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয় স্টেশন ম্যানেজারকে।

পরিদর্শন শেষে যাত্রীদের মাঝে দুদক অভিযোগ কেন্দ্র ১০৬ এর স্টিকার ও লিফলেট বিলি করা হয় এবং টিকেট ক্রয়-বিক্রয় প্রক্রিয়ায় কোনো অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি এবং ঘুষ লেনদেনের ঘটনা চোখে পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

রাঙ্গুনিয়ার পোমরা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দৈনিক পুর্বকোণের বিরুদ্ধে মামলা

 

সিটিজি বাংলা:  চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিত দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার বিরুদ্ধে তথ্য বিকৃতি ও মিথ্যা ভিক্তিহীন সংবাদ প্রকাশ অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

৩মে রবিবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট-৫ আল ইমরান এর আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়।

রাঙ্গুনিয়ার পোমরা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। বাদীর পক্ষে আদালতে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবি ইফতেখার হোসেন মোহসীন ও সাবেক আইনজীবি সমিতির সেক্রেটারী মোহাম্মদ এনামুল হক।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে আইনজীবি মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পাচঁলাইশ থানাকে নির্দেশ দিয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর পূর্বকোণ পত্রিকায় বিশ্বের শীর্ষ দুর্নীতিবাজ পরিবারে তৃতীয় খালেদা শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়। ওই সংবাদে ‘ফক্স নিউজ পয়েন্ট এবং র‌্যাকার ওয়াইল্ড’ নামে দুটি সংবাদের সূত্র উল্লেখ করলেও পরদিন কর্তৃপক্ষ দুঃখ প্রকাশ করে অনলাইন সংস্করণ থেকে সংবাদটি তুলে নেয়। পাশাপাশি প্রিন্ট সংস্করণে প্রতিবাদ ছাপিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন।

এর আগে, গত (১৫ অক্টোবর) বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে জড়িয়ে ‘অসত্য সংবাদ’ প্রকাশের ঘটনায় দায়ের করা একটি মামলায় চট্টগ্রামে আঞ্চলিক দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার সম্পাদক তসলিম উদ্দিন চৌধুরী ও পরিচালনা সম্পাদক জসীম উদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছে আদালত।

রাষ্ট্রপতি শীর্ষ সন্ত্রাসী জোসেফের ক্ষমা করে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দিয়েছেন

সিটিজি বাংলা: রাজধানীর শীর্ষ সন্ত্রাসী তোফায়েল আহমেদ জোসেফের আবেদনের প্রেক্ষিতে রাষ্ট্রপতি তাকে ক্ষমা করে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দিয়েছেন।

 

৩০ মে বুধবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জোসেফের যে প্রসঙ্গটা, তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছিল। তিনি অলরেডি ২০ বছর কারাভোগ করেছেন। ২০ বছর কারাভোগের পরই তিনি ডিউ প্রসেসে, যেভাবে প্রসেস হয় সেভাবে আবেদন করেছেন। সেই আবেদনটি মহামান্য (রাষ্ট্রপতি) পর্যন্ত যাচ্ছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জোসেফ আবেদন করেছিলেন ভয়ানক অসুস্থ, এক বছর না দেড় বছর বাকি ছিল (সাজা), এক বছর কয়েক মাস। সেটার জন্য তিনি মার্সি পিটিশন (ক্ষমা প্রার্থনা) করেছিলেন, সেটি খুব সম্ভব রাষ্ট্রপতি অনুমোদন করেছেন…এক বছর কয়েক দিন, তার কিছু অর্থদণ্ডও ছিল। সেগুলো আদায় সাপেক্ষে তাকে বিদেশে চিকিৎসার পারমিশন (অনুমতি) দিয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি। এটুকু আমি জানি, এর চেয়ে বেশি কিছু জানি না।

’জোসেফ ভারতে চলে গেছে- একজন সাংবাদিক জানাতেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পাল্টা প্রশ্ন করেন, ‘ইন্ডিয়াতে চলে গেছে আপনি দেখেছেন নাকি।’ ওই সাংবাদিক তখন বলেন- ‘আমি দেখিনি। পত্রিকায় খবর এসেছে।’

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন জোসেফ। সেখান থেকেই মুক্তি পান ঢাকার আন্ডারওয়ার্ল্ডের এ অন্যতম নিয়ন্ত্রক।

২০ বছর আগে জোসেফকে যখন গ্রেফতার করা হয়, তখন তার নামে ঢাকার বিভিন্ন থানায় সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, খুন, অবৈধ অস্ত্র বহনসহ বিভিন্ন অভিযোগে অন্তত ১১টি মামলা হয়।

১৯৯৯ সালের একটি হত্যাকাণ্ডে জোসেফের মৃত্যুদণ্ড হয়। হাইকোর্টও এ রায় বহাল রাখেন। পরবর্তী সময়ে আপিল বিভাগ সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। এখনও সেই সাজা ভোগ করা বাকি আছে প্রায় ২০ বছর। তার সম্ভব্য মুক্তির তারিখ ছিল ২০৩৯ সালের ২৪ জানুয়ারি।

বিশ্বকাপ ফুটবল-২০১৮তে বিদেশি পতাকা ওড়ানো বন্ধে হাইকোর্টে রিট

সিটিজি বাংলা: বিশ্বকাপ ফুটবল-২০১৮ উপলক্ষে দেশের শহর, নগর ও বন্দরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বাড়ির ছাদে বিদেশি পতাকা ওড়ানো ও ব্যবহার বন্ধে রিট আবেদন দায়ের করা হয়েছে।

১৮ মে রোববার মুক্তিযোদ্ধা মুহাম্মদ নুরুল আমিনের পক্ষে আইনজীবী অ্যাডভোকেট রিনা আক্তার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট দায়ের করেন।সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট দেওয়ান আব্দুন নাসের রিটের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিট আবদনে বলা হয়, আগামী ১৪ জুন’ ২০১৮ তারিখ থেকে রাশিয়ায় ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। অতীতে দেখা গেছে, ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দলের বাংলাদেশি সমর্থকেরা দেশের বিভিন্ন স্থানে বিদেশি পতাকা উত্তোলন করেন।তিনি বলেন, সোমবার বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে এই রিট আবেদনটি শুনানি হতে পারে।

আর্জিতে আরও বলা হয়, রিটকারী একজন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকার জন্য তিনি জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছিলেন। দেশের পতাকা বিধিমালার এমন প্রকাশ্য ও নির্বিচার লঙ্ঘন দেখে রিটকারী অত্যন্ত ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ। এমতাবস্থায় আসন্ন ফুটবল বিশ্বকাপ বা অন্য কোনো উপলক্ষে বাংলাদেশে সরকারের বিনা অনুমোদনে কোনো প্রকার বিদেশি পতাকা উত্তোলন নিষিদ্ধ করে স্বরাষ্ট্র সচিবকে একটি নির্দেশনা জারির আবেদন জানানো হয়েছে।এ ছাড়া রিটে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইতোমধ্যে উত্তোলিত বিদেশি পতাকা নামিয়ে ফেলার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করবেন অ্যাডভোকেট দেওয়ান আবদুন নাসের।

প্রসঙ্গত: এবারের বিশ্বকাপ উপলক্ষেও ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিদেশি পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে।বিশেষ করে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, জার্মানি ইত্যাদি দেশের বড় বড় পতাকায় সারা বাংলাদেশ ছেয়ে যায়। অথচ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের পতাকা বিধিমালা, ১৯৭২-এর বিধান অনুযায়ী, বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনৈতিক মিশনসমূহ ছাড়া অন্য কোনো স্থানে অন্য রাষ্ট্রের পতাকা উত্তোলন করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে। সেই বিধান লঙ্ঘন করে ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে নির্বিচারে দেশব্যাপী বিদেশি পতাকা উত্তোলন করা হয়।

 

 

বদির বিরুদ্ধে প্রমাণ আছে, আরো দরকার : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সিটিজি বাংলাঃ

‘মাদক বিক্রির প্রসঙ্গ এলেই কক্সবাজারের সংসদ সদস্য (উখিয়া-টেকনাফ) আবদুর রহমান বদির নাম আসে। তার বিরুদ্ধে আপনারা কি ব্যবস্থা নিচ্ছেন?’ সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘আপনারা যেভাবে বলছেন, আমরা সেভাবে কাজ করছি। আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না। আইন সবার জন্য সমান। আমরা আইনের বাইরে কাউকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেই না। কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নন। আপনারা সেটা নিশ্চিত থাকুন।’ মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।
এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘আপনারা যার (বদি) নাম বলেছেন তিনি একবার জেলে গেছেন, তার বিষয়ে আমরা জানার চেষ্টা করছি। আপনাদের কাছে তথ্য থাকলে আপনারাও তথ্য দিন।’
‘ইয়াবার রুট হিসেবে সারাদেশে এখন পরিচিত টেকনাফ। ২০১৪-১৫ সালের সকল গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বদির নাম রয়েছে।’ এমন একটি কথার জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না প্রথম কথা হলো এটি। সে বদি হোক, সংসদ সদস্য হোক, আর যেই হোক। শুধু বললেই তো হবে না! আমরা সঠিক প্রমাণটি যার বিরুদ্ধে পাচ্ছি, তাকেই অ্যারেস্ট করছি।’
‘বদির বিরুদ্ধে কি কোনো প্রমাণ নেই?’ মত বিনিময় সভায় একজন সাংবাদিকের এমন এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘অবশ্যই আছে। তবে আমাদের আরও প্রমাণের দরকার। প্রমাণ না পেলে আমরা কারো কাছে যাচ্ছি না। আপনার কাছে যদি কিছু থাকে পাঠিয়ে দেবেন। সবার কাছে আহ্বান করছি, কারো বিরুদ্ধে যদি কোনো প্রমাণ থাকে আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। আমাদের কাছে যাদের প্রমাণ আছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।’
প্রতিদিন সারাদেশ থেকে মাদকবিরোধী অভিযানে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ীদের নিহতের খবর আসছে। এমন একটি সময়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সচিবালয়ে তার কার্যালয়ে আজ সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মত বিনিময় সভায় মিলিত হন। সভায় উপস্থিত সাংবাদিকেরা আব্দুর রহমান বদি সম্পর্কে প্রশ্ন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে। সেখানে প্রাসঙ্গিকভাবে বদির নাম আসে। সাংবাদিকেরা মন্ত্রীকে বলেন, মাদক বিক্রির প্রসঙ্গ এলেই সব সময়বদির নাম আসে, তার বিরুদ্ধে আপনারা কি ব্যবস্থা নিচ্ছেন? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এরপর সাংবাদিকদের প্র্রশ্নের জবাব দেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘সংসদ সদস্য বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ আমাদের কাছে আছে। আমরা সেই অভিযোগগুলো সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিচ্ছি। বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, তথ্য-প্রমাণ নাই।’
এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘দেশে কোনও ক্রসফায়ার হচ্ছে না, যা হচ্ছে বন্দুকযুদ্ধ।’

গাজীপুরে একটি হত্যা মামলায় ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত

সিটিজি বাংলাঃ

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় বিল্লাল ওরফে বিলু হত্যা মামলায় ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি বিচারক প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন।

২৩ এপ্রিল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক ফজলে এলাহী ভূঁইয়া এ রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় ৭ আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকিরা পলাতক রয়েছেন।

আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট কাজল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৫ সালে কালীগঞ্জের ঈশ্বরপুর গ্রামে বিল্লাল হোসেন বিলুকে হত্যা করেন আসামিরা। তখন তার বয়স ছিল ৪৫ বছর। এ ঘটনায় তার স্ত্রী কালীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ১৩ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দিলে বিচারক অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করে।

খালেদার ৪ মাসের জামিন

নিউজ ডেস্কঃ

পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় চার মাসের অন্তঃবর্তীকালীন জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

১২ মার্চ সোমবার দুপুরে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ জামিন দেন।

আদালতে খালেদার পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটনি জেনারেল মাহবুবে আলম, সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।

অন্য কোন মামলায় গ্রেফতার না থাকায় আগামীকাল নাগাদ জেল থেকে মুক্তি পেতে পারেন বলে জানিয়েছেন খালেদার আইনজীবি ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন।

পেনশনের টাকা চেয়েছেন এস কে সিনহা

সিটিজি বাংলা:

পেনশনের টাকা চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে চিঠি পাঠিয়েছেন দুর্নীতিসহ ১১ অভিযোগ মাথায় নিয়ে প্রধান বিচারপতির পদ থেকে পদত্যাগ করা বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। গত বছর ডিসেম্বরের মাঝামাঝি এই চিঠি সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের কাছে আসে।

এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি বলে জানা গেছে। পদত্যাগী এই প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ ১১ অভিযোগ থাকায় তিনি এখন অবসরোত্তর সুবিধা পাবেন কি না সে বিষয়টিও পর্যালোচনা করছেন সংশ্লিষ্টরা।