চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

চাটগাঁ শহর

নগরীতে `ঈদ ফ্যাশনিস্ট ফেয়ার-২০১৯‘ অনুষ্ঠিত

চট্টগ্রাম নগরীতে আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগাম `ঈদ ফ্যাশনিস্ট ফেয়ার-২০১৯‘ সম্পন্ন হয়েছে। ৩১ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল তিনদিনব্যাপী নাসিরাবাদস্থ জিনোরেইন কনভেনশন সেন্টারে এ ফেয়ার অনুষ্ঠিত হয়।

অনলাইন গ্রুপ বিউটিফুল ইউ ও মেহেদী সাজ আগাম এই ঈদ ফেয়ারের আয়োজন করে।

এতে অংশগ্রহণ করে নারী উদ্যোক্তাদের সহযোগী আরও ৩০ টি  অনলাইন গ্রুপ।

মেলার উদ্বোধন করেন টুরিস্ট পুলিশ চট্রগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মুহাম্মদ মুসলিম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সীতাকুণ্ড সমিতি চট্রগ্রাম এর সাবেক সভাপতি লায়ন মোঃ গিয়াস উদ্দিন, চট্টগ্রাম ফটোগ্রাফি সমিতির সাবেক সভাপতি ও আন্তর্জাতিক ফটোগ্রাফি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র `পাঠশালা‘ চট্টগ্রামের কর্ণধার লায়ন শওকতুল ইসলাম, সীতাকুণ্ড সমিতির সহ-সভাপতি লায়ন কাজী আলী আকবর জাসেদ, মুক্তিযোদ্ধা ও কবি শুক্কুর চৌধুরী প্রমূখ।

প্রতিদিনি সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা অবধি অনুষ্ঠিত মেলায় চট্টগ্রাম মহানগরের বিভিন্ন নারী উদ্যোক্তা সংগঠক এবং অংশগ্রহণকারী গ্রুপ সমুহের এডমিনসহ বিপুলসংখ্যক গ্রাহক দর্শনার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মেলার সমাপনী দিনে চট্টগ্রামের সেরা ফ্যাশন মডেলদের অংশগ্রহণে চমৎকার ফ্যাশন প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। যা উপস্থিত সবার তুমুল করতালিতে প্রশংসিত হয়।

মেলার মুল আয়োজক বিশিষ্ট ফ্যাশন ডিজাইনার, বিউটিশিয়ান ও অনলাইন ব্যবসায়ী উদ্যোক্তা সুহা শবনম সিটিজি বাংলাকে জানান, আসন্ন ঈদ বাজারকে লক্ষ্য করেই এ আয়োজন। আগে মানুষ অতটা ফ্যাশন সচেতন ছিল না, কেবল ভারত হতে আমদানীকৃত কিছু পোশাক ঘিরেই ছিল ঈদ বাজার।

বর্তমানে মানুষের সচেতনতা ও আগ্রহ বেড়েছে, পাশাপাশি স্থানীয় নারী উদ্যোক্তারা নুতন নুতন ফ্যাশন ভাবনা নিয়ে এগিয়ে এসেছেন। মার্কেট হতে তুলনামূলক কম দামে পছন্দের পোষাকটি অনলাইনে ঘরে বসেই সংগ্রহ করতে পারছেন। এই মেলা সবার মাঝে সেই ধারনাটি আরো বিস্তৃত ভাবে তুলে ধরায় সহায়ক হবে বলেই মনে করি। তিনি সার্বিক সহযোগিতার জন্য অতিথিবৃন্দ এবং মিডিয়াসহ সবাইকেই ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, উদ্যোক্তা সুহা শবনম সীতাকুণ্ডের বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও কবি শুক্কুর চৌধুরীর একমাত্র কন্যা।

“মুক্তিযোদ্ধা’র ভাষণ” : শুক্কুর চৌধুরী

শুক্কুর চৌধুরী- মুক্তিযোদ্ধা, কবি, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও মানবাধিকারকমী, সেচ্ছায় অবসরপাপ্ত সরকারী চাকুরীজীবী

সম্মানিত সভাপতি এবং যত গুণী খ্যাতিমান
আছেন আরো যারা যারা মঞ্চে সমাসীন
এবং সন্মুখে আছেন যে কজন
সবাইকেই বিনীত সালাম নিবেদন।

আমি নগন্য মুক্তিযোদ্ধা
দিয়েছেন একটি সনদ জীবিকা ভাতা
সাংবৎসর থাকি উপেক্ষিত,
স্বাধীনতা ও বিজয় দিবস যখন
হটাৎ বেড়ে যায় আদর যতন
কিছু উপটোকন এবং অযত্নে মঞ্চের কোনে আসন,
বুঝতে পারিনা আমাদের সম্বর্ধনা
নাকি দাম্ভিক নেতাদের সুশোভিত উদযাপন !

ভাষা ভোট ভাত গনতন্ত্রের যত অধিকার
আমরাই জনগণ সর্বত্রই ছিলাম সোচ্চার !
. স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছি
যারা মরে বেচেঁ গেছে ওরা ত্রিশলক্ষ,
যারা বেচেঁ ফিরেছি তারা সব বিরুপাক্ষ !

সন্মানিত সুশীল সুধীজন
মুক্তিযুদ্ধের এই যে পারলৌকিক যত্তোসব আয়োজন
এখানে অবহেলিত অধমদের উপস্থাপনের খুব কি প্রয়োজন !

আমরা কি এইসব দিনের জন্য করেছি যুদ্ধ
করেছি মিটিং মিছিল হরতাল অবরোধ
আন্দোলন এবং অবশেষে মুক্তিযুদ্ধ প্রতিরোধ,
আমরা চেয়েছি মুক্তি সাম্য সমঅধিকার
আমরা চেয়েছি গনতন্ত্র শান্তি প্রগতি শোষণমুক্তি ন্যায় বিচার।

এতদিনে বুঝেছি আপনারা আমাদের স্বপ্নের সারথী নন
সন্মানিত উপস্থিতি এখানে স্বাধীনতার ইতিহাস জানেন কজন !
সেটুকুন জানার সময় কারোই যেন নাই
তাইতো মুক্তিযুদ্ধে কার কতখানি অবদান খুঁজেন নাই
সবাই সর্বত্র অযথা দেশপ্রেমের ফাকাঁ বুলি আওড়াই,
কেউ বলেন না স্বাধীন দেশের লক্ষ্য গন্তব্য কোথায়
দিনমান ব্যাস্ত থাকেন পারস্পরিক দোষারোপ নিন্দায় !

যেখানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাই কেউ করেনা ধারণ লালন
সেখানে কেন মিছেমিছি মুক্তিযোদ্ধাদের সভা মঞ্চে এনে ভাঁড়ের অলংকরণ !!!

@ শুক্কুর চৌধুরী * চট্রগ্রাম।

প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ‘প্রজাপতির ডানায় পদাবলি ‘

নিজস্ব প্রতিবেদক :অল্প কিছুদিন পরই ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে গোটা জাতির মধ্যেই তখন থাকে শোকের আবহ।আর এ ফেব্রুয়ারি মাসেই বাংলা একাডেমি প্রান্তরে ‘অমর একুশে বইমেলা’ চলে মাসব্যাপী। বইমেলায় মিলন ঘটে নবীন পুরাতন লেখকদের।ইতোমধ্যেই লেখক পাড়া আর প্রেসের কর্মব্যস্ততা জমে উঠেছে।তবে বইমেলার সবচেয়ে বড় আকর্ষণ নবীন লেখকদের বই প্রকাশ।

এবারের বইমেলায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে চট্টগ্রামের উদীয়মান কবি বিভা ইন্দুর দ্বিতীয় কবিতার বই ‘প্রজাপতির ডানায় পদাবলি ‘।
বিভা ইন্দুর লেখালেখির হাতেখড়ি কৈশোরে।কবিতা লেখার পাশাপাশি গদ্য রচনায় ও সিদ্ধহস্ত।বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে তার প্রকাশিত লেখার ভূয়সী প্রশংসা রয়েছে পাঠকসমাজে।সংস্কৃতিমনা বিভা ইন্দুর অবসর সময় কাটে বিভিন্ন সাহিত্য আড্ডা কিংবা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে।ইতোমধ্যে তার লেখা কবিতাগুলো পাঠক সমাজে অনন্য আবেদন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের কৃতি শিক্ষার্থী বর্তমানে চট্টগ্রামেরর একটি স্কুলে শিক্ষকতা করছেন।তার কবিতার বই ‘প্রজাপতির ডানায় পদাবলি’ পাঠক সমাজে আলোড়ন তৈরি করতে সক্ষম হবে বলে মনে করেন বিভিন্ন কবি সাহিত্যিক।

কাউন্সিলর মোরশেদ আকতার চৌধুরীর জন্মদিন পালন

আজ ২৫ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ১১ নং সরাইপাড়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোরশেদ আকতার চৌধুরীর ৪৩তম জন্মদিন।

এ উপলক্ষে রাতে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে কেক কেটে জন্মদিন পালন করেন তিনি।

এসময় নেতা-কর্মীরা হৈ-হুল্লোড় করে প্রিয় নেতার জন্মদিনে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

মোরশেদ আকতার চৌধুরী এসময় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। যিনি সুস্থতার সাথে আমাদেরকে বেঁচে থাকার তৌফিক দিয়েছেন।

একই সাথে জন্মদিনে যারা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

পিইউডিএস বিপি ক্যাজুয়েল সিজন থ্রি সম্পন্ন

মু. মেহেদি রহমান :প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় বিতর্ক সংগঠন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি আয়োজিত জাতীয় ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা “বিপি ক্যাজুয়েল সিজন থ্রি ২০১৮” এর গ্র্যান্ড ফিনালে ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান গতকাল শনিবার নগরীর প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের জিইসিস্থ ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি আরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষক দেশবরেণ্য অধ্যাপক ও সাহিত্যিক ড. মোহীত উল আলম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোহীত উল আলম বলেন, “সঠিক উপায়ে বিতর্ক করার মাধ্যমে সহিংসতার সম্ভাবনা কমিয়ে আনা যায়। বিতর্কের মাধ্যমে আমরা অনেক সমস্যার সমাধান খুঁজে নিতে পারি।”

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি এর চীফ মডারেটর মিসেস জুলিয়া পারভীন। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সম্মানিত সহকারী ডীন মঈনুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির মডারেটরবৃন্দ সঞ্জয় বিশ্বাস,সাইফুদ্দিন মুন্না ও হিল্লোল সাহা।

গতকাল ২৩ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া উক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সারাদেশের ২৮ টি বিতর্ক দল শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের লক্ষে লড়াইয়ে সামিল হয়।

প্রতিযোগিতায় দুটি ক্যাটাগরি দলগুলো অংশগ্রহণ করে। নোভাইস গ্রুপে বিজয়ী দল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও রানারআপ দল চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ। ওপেন ক্যাটাগরিতে
বিজয়ী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও রানারআপ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ প্রতিযোগীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন।

চট্টগ্রামে বন্ধুর বাসা থেকে গ্রেফতার এহসানুল হক মিলন

সিটিজি বাংলাঃ

বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, চাঁদপুরের কচুয়ার সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহসানুল হক মিলনকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।  আজ শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে নগরীর চকবাজার থানার ৪৫২ চট্টেশ্বরী রোডের “মমতাজ ছায়ানীড়” নামে একটি বাসা থেকে চাঁদপুর ও সিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর নিয়ে যাচ্ছে।

চাঁদপুর এডিশনাল এসপি মিজানুর রহমান এহসানুল হক মিলনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানাগেছে, চাঁদপুর জেলা ডিবি’র ওসি মো. মামুন এর নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম চট্টগ্রামে আসে। তাদের সাথে যোগ দেন চট্টগ্রাম নগর ডিবির একটি  ৩ সদস্য। রাত আড়াইটার দিকে প্রায় ১০/১২ সদস্যের গোয়েন্দা দল নগরীর চট্টেশ্বরী একটি বাসায় বিএনপি নেতা এহসানুল হক মিলনের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে ওই বাসা ঘেরাও করে।  ৪৫২ চট্টেশ্বরী রোডের ওই বাসার মালিক শাহ আলম বিএনপি নেতা এহসানুল হক মিলনের বন্ধু। এই বাসায় মিলন বেশ কয়েকদিন ধরে আত্মগোপনে ছিলেন বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ বাড়ীর মালিক শাহ আলমকেও আটক করেছে বলে তার স্ত্রী সাইকা আলম অভিযোগ করেন।

বাড়ীর ম্যানেজার শাহ আলম জানান, রাত আড়াইটা থেকে পুলিশ ওই বাসার গেইট খোলার জন্য বার বার অনুরোধ করার পরও প্রথমে গেইট খোলা হয়নি। পরে ভোর রাত ৪টার দিকে পুলিশ গেইট ভাঙ্গার চেষ্টা করলে খুলে দেয়া হয় ভীতর থেকে। এর পর পরই পুলিশ সাবেক মন্ত্রী মিলনকে আটকের কথা জানালে তিনি ৩০ মিনিট সময় চেয়ে গোসল করে নামাজ পড়েন। পরে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে পুলিশ মিলনকে নিয়ে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সূত্রঃ পাঠক নিউজ

চট্টগ্রামে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ছাত্রীর মাকে হত্যা, গৃহশিক্ষক আটক

চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ এলাকায় শাহীনা বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মেয়ের গৃহশিক্ষক শাহজাহানকে আটক করেছে পুলিশ।

২০ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকালে নগরীর আকবরশাহ থানার বিশ্ব কলোনি বেড়া মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় আহত হয়েছে শাহীনা বেগমের স্বামী ও দেবরকে কুপিয়ে আহত করেছে শাহজাহান।

আকবর শাহ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন এ খবর নিশ্চিত করে বলেন, ঘাতক শাহজাহানকে আটক করা হয়েছে।

তিনি জানান, নিহতের মেয়েকে বাসায় এসে পড়াতো। এই সুযোগে ছাত্রীর সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিষয়টি পারিবারের জানাজানি হলে তাকে গৃহশিক্ষক থেকে বাদ দেয়া হয় এবং তাদের বাড়ীতেও আসতে নিষেধ করা হয়। কিন্তু শাহজাহান নিষেধ অমান্য করে তাদের বাড়ীতে আসলে নিহতের স্বামী তাকে মারধর করে। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে শাহজাহান শাহীনাকে কুপিয়ে হত্যা করে।

প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ত্রৈমাসিক আলোকপত্রের তৃতীয় সংখ্যা

বিস্তারিত »

দৈনিক কর্ণফূলী সম্পাদক গ্রেফতার

আবছার উদ্দিন চৌধুরী। ফাইল ছবি

দৈনিক কর্ণফূলী পত্রিকার সম্পাদক ও চট্টগ্রামের জামায়াতের নায়েবে আমির আবছার উদ্দিন চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৮ নভেম্বর রোববার সন্ধ্যায় চকবাজারের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিম।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম ও অপারেশন) আমেনা বেগম জানান, এডিসি কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আগামীকাল দুপুরে তাকে আদালতে হাজীর করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

চট্টগ্রামে এক্টিভ সিটিজেন ইয়ুথ লিডারশীপ ট্রেনিং সম্পন্ন

মু. মেহেদি রহমান : তরুণদের নেতৃত্বগুণ বিকশিত ও সামাজিক দায়বদ্ধতা সৃষ্টির লক্ষে ব্রিটিশ কাউন্সিল ও দি হাঙ্গার প্রজেক্টের আয়োজনে চট্টগ্রামে গতকাল চারদিনব্যাপী ‘এক্টিভ সিটিজেন ইয়ুথ লিডারশীপ ট্রেনিং ‘ সম্পন্ন হয়েছে।
গত ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ কর্মশালায় নগরীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আগত ৩০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করে। উক্ত কর্মশালায় নেতৃত্বগুণ অর্জন ও সামাজিক সমস্যা সমূহ সমাধানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন দিক তুলে দেন প্রশিক্ষকবৃন্দ।গতকাল সমাপনী দিনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের সম্মানিত শিক্ষক তারিক রায়হান উপস্থিত থেকে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।
ফ্যাসিলিটেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সুব্রত পান্থ, মুনতাসির আবরার এবং রাফিউ আহমেদ।
কর্মশালা শেষে প্রশিক্ষণার্থীরা উক্ত কর্মশালা নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। কর্মশালা শেষে প্রশিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।