চট্টগ্রামের পাঠকপ্রিয় অনলাইন

চাটগাঁ শহর

পিইউডিএস বিপি ক্যাজুয়েল সিজন থ্রি সম্পন্ন

মু. মেহেদি রহমান :প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় বিতর্ক সংগঠন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি আয়োজিত জাতীয় ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা “বিপি ক্যাজুয়েল সিজন থ্রি ২০১৮” এর গ্র্যান্ড ফিনালে ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান গতকাল শনিবার নগরীর প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের জিইসিস্থ ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি আরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষক দেশবরেণ্য অধ্যাপক ও সাহিত্যিক ড. মোহীত উল আলম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোহীত উল আলম বলেন, “সঠিক উপায়ে বিতর্ক করার মাধ্যমে সহিংসতার সম্ভাবনা কমিয়ে আনা যায়। বিতর্কের মাধ্যমে আমরা অনেক সমস্যার সমাধান খুঁজে নিতে পারি।”

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি এর চীফ মডারেটর মিসেস জুলিয়া পারভীন। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সম্মানিত সহকারী ডীন মঈনুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির মডারেটরবৃন্দ সঞ্জয় বিশ্বাস,সাইফুদ্দিন মুন্না ও হিল্লোল সাহা।

গতকাল ২৩ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া উক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সারাদেশের ২৮ টি বিতর্ক দল শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের লক্ষে লড়াইয়ে সামিল হয়।

প্রতিযোগিতায় দুটি ক্যাটাগরি দলগুলো অংশগ্রহণ করে। নোভাইস গ্রুপে বিজয়ী দল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও রানারআপ দল চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ। ওপেন ক্যাটাগরিতে
বিজয়ী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও রানারআপ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ প্রতিযোগীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন।

চট্টগ্রামে বন্ধুর বাসা থেকে গ্রেফতার এহসানুল হক মিলন

সিটিজি বাংলাঃ

বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, চাঁদপুরের কচুয়ার সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহসানুল হক মিলনকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।  আজ শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে নগরীর চকবাজার থানার ৪৫২ চট্টেশ্বরী রোডের “মমতাজ ছায়ানীড়” নামে একটি বাসা থেকে চাঁদপুর ও সিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর নিয়ে যাচ্ছে।

চাঁদপুর এডিশনাল এসপি মিজানুর রহমান এহসানুল হক মিলনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানাগেছে, চাঁদপুর জেলা ডিবি’র ওসি মো. মামুন এর নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম চট্টগ্রামে আসে। তাদের সাথে যোগ দেন চট্টগ্রাম নগর ডিবির একটি  ৩ সদস্য। রাত আড়াইটার দিকে প্রায় ১০/১২ সদস্যের গোয়েন্দা দল নগরীর চট্টেশ্বরী একটি বাসায় বিএনপি নেতা এহসানুল হক মিলনের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে ওই বাসা ঘেরাও করে।  ৪৫২ চট্টেশ্বরী রোডের ওই বাসার মালিক শাহ আলম বিএনপি নেতা এহসানুল হক মিলনের বন্ধু। এই বাসায় মিলন বেশ কয়েকদিন ধরে আত্মগোপনে ছিলেন বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ বাড়ীর মালিক শাহ আলমকেও আটক করেছে বলে তার স্ত্রী সাইকা আলম অভিযোগ করেন।

বাড়ীর ম্যানেজার শাহ আলম জানান, রাত আড়াইটা থেকে পুলিশ ওই বাসার গেইট খোলার জন্য বার বার অনুরোধ করার পরও প্রথমে গেইট খোলা হয়নি। পরে ভোর রাত ৪টার দিকে পুলিশ গেইট ভাঙ্গার চেষ্টা করলে খুলে দেয়া হয় ভীতর থেকে। এর পর পরই পুলিশ সাবেক মন্ত্রী মিলনকে আটকের কথা জানালে তিনি ৩০ মিনিট সময় চেয়ে গোসল করে নামাজ পড়েন। পরে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে পুলিশ মিলনকে নিয়ে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সূত্রঃ পাঠক নিউজ

চট্টগ্রামে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ছাত্রীর মাকে হত্যা, গৃহশিক্ষক আটক

চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ এলাকায় শাহীনা বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মেয়ের গৃহশিক্ষক শাহজাহানকে আটক করেছে পুলিশ।

২০ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকালে নগরীর আকবরশাহ থানার বিশ্ব কলোনি বেড়া মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় আহত হয়েছে শাহীনা বেগমের স্বামী ও দেবরকে কুপিয়ে আহত করেছে শাহজাহান।

আকবর শাহ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন এ খবর নিশ্চিত করে বলেন, ঘাতক শাহজাহানকে আটক করা হয়েছে।

তিনি জানান, নিহতের মেয়েকে বাসায় এসে পড়াতো। এই সুযোগে ছাত্রীর সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিষয়টি পারিবারের জানাজানি হলে তাকে গৃহশিক্ষক থেকে বাদ দেয়া হয় এবং তাদের বাড়ীতেও আসতে নিষেধ করা হয়। কিন্তু শাহজাহান নিষেধ অমান্য করে তাদের বাড়ীতে আসলে নিহতের স্বামী তাকে মারধর করে। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে শাহজাহান শাহীনাকে কুপিয়ে হত্যা করে।

প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ত্রৈমাসিক আলোকপত্রের তৃতীয় সংখ্যা

বিস্তারিত »

দৈনিক কর্ণফূলী সম্পাদক গ্রেফতার

আবছার উদ্দিন চৌধুরী। ফাইল ছবি

দৈনিক কর্ণফূলী পত্রিকার সম্পাদক ও চট্টগ্রামের জামায়াতের নায়েবে আমির আবছার উদ্দিন চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৮ নভেম্বর রোববার সন্ধ্যায় চকবাজারের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিম।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম ও অপারেশন) আমেনা বেগম জানান, এডিসি কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আগামীকাল দুপুরে তাকে আদালতে হাজীর করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

চট্টগ্রামে এক্টিভ সিটিজেন ইয়ুথ লিডারশীপ ট্রেনিং সম্পন্ন

মু. মেহেদি রহমান : তরুণদের নেতৃত্বগুণ বিকশিত ও সামাজিক দায়বদ্ধতা সৃষ্টির লক্ষে ব্রিটিশ কাউন্সিল ও দি হাঙ্গার প্রজেক্টের আয়োজনে চট্টগ্রামে গতকাল চারদিনব্যাপী ‘এক্টিভ সিটিজেন ইয়ুথ লিডারশীপ ট্রেনিং ‘ সম্পন্ন হয়েছে।
গত ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ কর্মশালায় নগরীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আগত ৩০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করে। উক্ত কর্মশালায় নেতৃত্বগুণ অর্জন ও সামাজিক সমস্যা সমূহ সমাধানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন দিক তুলে দেন প্রশিক্ষকবৃন্দ।গতকাল সমাপনী দিনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের সম্মানিত শিক্ষক তারিক রায়হান উপস্থিত থেকে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।
ফ্যাসিলিটেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সুব্রত পান্থ, মুনতাসির আবরার এবং রাফিউ আহমেদ।
কর্মশালা শেষে প্রশিক্ষণার্থীরা উক্ত কর্মশালা নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। কর্মশালা শেষে প্রশিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

চট্টগ্রামসহ সারা দেশে প্রাথমিক ও এবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা শুরু

সিটিজি বাংলাঃ

চট্টগ্রাম সহ সারাদেশে ১৯ নভেম্বর রোববার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হয়েছে প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা। প্রথম দিন উভয়স্তরে ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।

পরীক্ষা চলবে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত।  এবার সাত হাজার ৪১০টি কেন্দ্রে ৩০ লাখ ৯৫ হাজার ১২৩ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থীর মধ্যে চট্টগ্রাম থেকে অংশ নিচ্ছে এক লাখ ৪৫ হাজার ৫৬৩ জন শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, এ বছর সারাদেশে প্রাথমিক সমাপনীতে ২৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৭০ জন এবং ইবতেদায়িতে তিন লাখ ১৭ হাজার ৮৫৩ জন পরীক্ষা দিবে। এবার ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রী সংখ্যা দুই লাখ ১৯ হাজার ৭৮৬ জন বেশি । গত বছর ২৮ লাখ চার হাজার ৫০৯ জন খুদে শিক্ষার্থী প্রাথমিক সমাপনী এবং দুই লাখ ৯১ হাজার ৫৬৬ জন ইবতেদায়ি পরীক্ষার্থী ছিল।

বিএনপির আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নগর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

মো. নাজমুলঃ

বিএনপির জ্বালাও পোড়াও সহ নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ।

বিএনপির জ্বালাও পোড়াও সহ নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ। ১৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টায় দারুল ফজল মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ  সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

মিছিলে অংশ নেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ইয়াসিন আরাফাত কচি,ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, যুগ্ম সম্পাদক রনি মির্জা, সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলম মানিক, সদস্য মিজানুর রহমান মিজান।

এ ছাডাও নগরীর ওমরগনি এম ই এস কলেজের ছাত্রলীগ নেতা আনিসুর রহমান, মামুন ইসলাম, সাকিল, মুন্না জাহিদুল আলম প্রমুখ।

বিএনটিভি সম্পাদকের সম্মাননা লাভ

মো. নাজমুলঃ

বিএনটিভি সম্পাদক শেখ রাজীব আনোয়ারের (বাঁয়ে) হাতে সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন। ছবি- মো. নাজমুল

অক্সফোর্ড মডার্ন স্কুল এন্ড কলেজের পক্ষ থেকে সম্মাননা লাভ করেছেন বিএনটিভির সম্পাদক শেখ রাজীব আনোয়ার। ১১ নভেম্বর রোববার বিকালে নগরীর রীমা কমিউনিটি সেন্টারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন বিএনটিভি সম্পাদকের হাতে এ সম্মাননা তুলে দেন। এ সময় অধ্যক্ষ বিএনটিভি’র বস্তুনিষ্ঠ সংবাদের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং চট্টগ্রামের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে বিশ্ব দরবারে উপস্থাপনের জন্য সম্পাদককে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এর আগে সকাল ৯টা থেকে অক্সফোর্ড মডার্ন স্কুল এন্ড কলেজের দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি বিএনটিভি, বিএনটিভি’র ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেইজে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কোতয়ালী জোনের সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম।

প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আমীর মুহাম্মদ নসরুল্লাহ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাবেদ, কাউন্সিলর হাজী জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, সদরঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চট্টগ্রাম শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহাব উদ্দিন, কাউন্সিলর আলহাজ্ব আব্দুল কাদের, সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোহাম্মদ হোসেন, পিআইবি চট্টগ্রাম জেলা’র ইন্সপেক্টর (প্রশাসন), আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা’র গ্লোবাল অ্যাম্বাসেডর মতিউর রহমান সৌরভ।

নির্বাচনের পথে ২০ দল, ধানের শীষ প্রতিকে অংশ নিতে পারে নিবন্ধনহীন জামায়াত

সিটিজি বাংলাঃ

২০ দলের বৈঠক

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে না জানানো হলেও বিএনপির হাইকমান্ড, ২৩ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অধিকাংশ শরীক নির্বাচনে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছে। এর অংশ হিসেবে জোটগতভাবে নির্বাচনের বিষয়টি বিএনপিসহ নিবন্ধিত দলগুলো রোববার পৃথকভাবে নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে জানাবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়া না নেয়াসহ পরবর্তী কর্মসুচি ঠিক করতে শনিবার সিরিজ বৈঠক করে বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০দলীয় জোটের নেতারা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক চলছিল।
২০ দলীয় জোটের বৈঠকের পর জোটের নেতা এলডিপির সভাপতি অলি আহমদ বলেন, দুই-একদিনের মধ্যেই নির্বাচন যাওয়া না যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবে ২০ দল।

তিনি বলেন, আজকের (শনিবার) বৈঠকে দেশের নির্বাচন ও দেশে সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। নির্বাচনে যাবো কি যাবো না এই ব্যাপারে আমরা কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি। আগামী দুই দিনের মধ্যেই ২০ দলীয় ঐক্যজোট আমাদের মূল দল বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে কথা বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জাতির সামনে উপস্থাপন করব।

অলি বলেন, জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি হলো আমাদের প্রধান্য, তাকে মুক্তি দিতে হবে। তাহলেই নির্বাচনের পরিবেশ ফিরে আসবে। ২০ দলের অনেক নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার হয়েছে। যদিও সরকার বলছে যে, সকলের জন্য নির্বাচনের সমান সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। আমরা মনে করি এটা কাগজে কলমে সীমাবদ্ধ, পত্রিকার মধ্যে সীমাবদ্ধ। এখনো সকল দলের জন্যে সমান সুযোগ সৃষ্টি হয় নাই।

এলডিপির প্রধান বলেন, আমরা যারা নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল এই জোটে আছি তারা কমিশনের কাছে চিঠি লেখবে। চিঠির ভাষা এমন হবে যে, যদি আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহন করি সেক্ষেত্রে আমাদের দলীয় প্রতীকে অনেকে নির্বাচন করবে। আবার অনেকে ২০ দলের মূল দল বিএনপির প্রতীকে নির্বাচন করবে। যদি আমরা নির্বাচন করি।

এক প্রশ্নের জবাবে অলি আহমদ বলেন, যদি নির্বাচন গেলে আমি আমার দলীয় প্রতীকে নির্বাচন কবর।

জোটের এক নেতা জানিয়েছেন, তিনটি দল ছাড়া সবাই বৈঠকে আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছে। জামায়াতে ইসলামী আজ তাদের সিদ্ধান্ত জানানোর কথা বলেছে।

অলি আহমদের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিএনপির নজরুল ইসলাম খান, জাতীয় পার্টি(কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, জামায়াতের আবদুল হালিম, বিজেপি আন্দালিব রহমান পার্থ, খেলাফত মজলিশের মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক, আহমেদ আবদুল কাদের, ইসলামী ঐক্যজোটের মাওলানা এম এ রকীব, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, এলডিপির রেদোয়ান আহমেদ, জাগপার তাসমিয়া প্রধান, এনডিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান, মুসলিম লীগের এএইচএম কামরুজ্জামান খান, পিপলস লীগের গরীবে নেওয়াজ, ন্যাপ ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, ডিএলের সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা নুর হোসেইন কাসেমী, মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, বাংলাদেশ জাতীয় দল সৈয়দ এহসানুল হুদা, পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ, রিটা রহমান, মাইনরিটি জনতা পার্টির সুকৃতি কুমার মন্ডল প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে নির্বাচনের বিষয়ে আলোচনা হয়।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যরিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, রফিকুল ইসলাম মিয়া, ড. আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

স্থায়ী কমিটির বৈঠক সুত্রে জানা গেছে, আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহনের পক্ষেই অধিকাংশ নেতা মত দিয়েছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলসহ নির্বাচনী সব প্রক্রিয়ায় থাকার জন্য দ্রুত সময়ে কিভাবে প্রস্তুতি সম্পন্ন করা যায় তা নিয়েও আলোচনা হয়। এছাড়া নির্বাচনে সরকার কতটুকু নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করে এবং নির্বাচন কমিশন কতটুকু শক্তিশালী অবস্থান নেয় তা দেখে আন্দোলন শুরু করার ব্যাপারেও নেতারা মত দেন।

বৈঠক থেকে বের হয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিষ্টার মওদদু আহমদ বলেন, নির্বাচনসহ বিভিন্ন বিষযে আলোচনা হয়েছে। আজ রোববার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৈঠকগুলোর আলোচিত বিষয় ও সিদ্ধান্তের ব্যাপারে জানাতে সংবাদ সম্মেলন করবেন।

জানা গেছে, আজ দিনের যেকোন সময়ে মির্জা ফখরুল কারাবন্দী দলের চেয়াপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারাগারে দেখা করার চেষ্টা করবেন। নির্বাচনের বিষয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত জানার পরেই সংবাদ সম্মেলন করতে পারেন মির্জা ফখরুল।
২০ দলীয় জোটের বৈঠকের পর একই স্থানে রাত আটটায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শুরু হয়।